বাধা ডিঙানো বোধিপ্রিয়র গল্প

0 Posted by - May 7, 2017 - শিক্ষাঙ্গণ
Smiley face

মায়ের সঙ্গে শারীরিক প্রতিবন্ধী বোধিপ্রিয় চাকমা। অদম্য এই তরুণ এবার মানবিক বিভাগ থেকে ৪ দশমিক ৭ পেয়ে এসএসসি পাস করেছে।

জয়ন্তী দেওয়ান| জন্ম থেকেই পা বাঁকা বোধিপ্রিয় চাকমার। অভাবের সংসারে শারীরিক প্রতিবন্ধী বাবা-মায়ের ঘরে বড় হয়েছে সে। ছোটবেলায় বাবা মারা গেলে প্রতিবন্ধী মা দিনমজুরি করে সংসার চালিয়েছেন। শুঁটকির দোকানে কাজ করে কিংবা টিউশন করে নিজের পড়ার খরচ জোগাড় করতে হয়েছে তাকে। সকালে বিদ্যালয়ে যাওয়ার আগে কোনো দিন খাবার জুটেছে, কোনো দিন জোটেনি। শেষ পর্যন্ত সব বাধা ডিঙিয়ে অদম্য এই তরুণ এবার মানবিক বিভাগ থেকে ৪ দশমিক ৭ পেয়ে এসএসসি পাস করেছে।

বোধিপ্রিয় চাকমা খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলার উল্টাছড়ি ইউনিয়নের কর্মা পাড়ার মৃত সুখময় চাকমার ছেলে। মা বিণা চাকমা (৪৬) প্রতিবন্ধী ও দিনমজুর। দুই ভাই দুই বোনের মধ্যে বোধিপ্রিয় তৃতীয়। বড় দুই বোনও প্রতিবন্ধী। এর মধ্যে বড় বোন মনোবালা চাকমা ঢাকার একটি কারখানায় চাকরি করে।

বোধিপ্রিয় চাকমার মা বিণা চাকমা বলেন, ‘অভাবের সংসার, নিজেদের কোনো ভিটেমাটি নেই। অন্যের জায়গায় থাকি। বাড়ির সবাই প্রতিবন্ধী হলেও কোনো সাহায্য পাইনি। ছেলেমেয়েদের বই কেনার সামর্থ্য নেই। তবু খেয়ে না–খেয়ে দুই ছেলেকে পড়ানোর চেষ্টা করছি। বড় মেয়ে মনোবালা চাকমাও পড়ালেখায় ভালো ছিল। পঞ্চম শ্রেণিতে বৃত্তিও পেয়েছিল। টাকার অভাবে দশম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ে এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারেনি।’

বোধিপ্রিয় চাকমার ছোট ভাই অমরপ্রিয় চাকমাও পিএসসিতে ভালো ফলাফল করে পানছড়ি বাজার উচ্চবিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ছে। ছেলেদের সাফল্যে খুশি হলেও ভবিষ্যতে লেখাপড়ার খরচ জোগাড় করা নিয়ে দুশ্চিন্তা কাটছে না বিণা চাকমার। বোধিপ্রিয় চাকমা বলে, তার এ সাফল্যের পেছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছে তার মা ও বড় বোন। তাঁদের উৎসাহ ও প্রেরণা ছাড়া কখনো পড়ালেখা সম্ভব হতো না বলে জানায় সে। তবে তার বড় বোনের পক্ষে তাদের দুই ভাইকে পড়ালেখা করানো সম্ভব নয়। কলেজে কীভাবে ভর্তি হবে, লেখাপড়ার খরচ কীভাবে জোগাড় হবে, এ নিয়ে চিন্তিত সে।

প্রতিবেশী সুগত চাকমা জানান, বোধিপ্রিয়র পরিবারের সবাই প্রতিবন্ধী। দরিদ্র পরিবারের চার ভাইবোনই অত্যন্ত মেধাবী। বোধিপ্রিয় স্কুলজীবনে প্রথম ও দ্বিতীয় ছাড়া কখনো তৃতীয় হয়নি। সরকার কিংবা কোনো বিত্তবান ব্যক্তির সহায়তা পেলে সে অনেক দূর এগিয়ে যাবে।–প্রথম আলো।

Facebook Comments

বৌদ্ধদের আরো তথ্য ও সংবাদ পেতে হলে আমাদের ফেসবুক ফ্যান পেইজে লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন।: www.facebook.com/buddhisttimes

দি বুড্ডিস্ট টাইমস.কম একটি স্বতন্ত্র ইন্টারনেট মিডিয়া। এখানে বৌদ্ধদের দৈনন্দিন জীবনের বিষয়গুলোকেই তুলে আনার চেষ্টা করা হয়। পাশাপাশি যে কেহ লিখতে পারেন দি বুড্ডিস্ট টাইমস এ। দি বুড্ডিস্ট টাইমস এর সাথে লেখ-লেখিতে যুক্ত হতে চাইলে ব্যবহার বিধি ও নীতিমালা পড়ুন অথবা নিবন্ধন করুন
এখানে।

No comments

Leave a reply

error: অনুগ্রহ করে কপি/পেস্ট মনোভাব পরিহার করি নিজে লেখার যোগ্যতা অর্জন করুন।