Jun 20, 2016
180 Views
0 0

বুদ্ধ কাকে ব্রাহ্মণ বলেন এবং বৌদ্ধধর্মে অলৌকিক শক্তির গুরুত্ব কতটুকু?

লিখেছেন:

ধম্মপদের ৪১৩নং গাথায় বুদ্ধ বলেন, চন্দং ব বিমলং সুদ্ধং বিপ্পসন্নমনাবিলং। নন্দীভবপরিকখীণং তমহং ব্রুমি ব্রাক্ষণং।।

অর্থাৎ যিনি চন্দ্রের মতো বিমল, শুদ্ধ, স্বচ্ছ এবং নির্মল এবং যাঁর সব তৃষ্ণা ক্ষয় হয়ে গেছে, তাঁকে আমি ব্রাহ্মণ বলি।

মহামতি বুদ্ধের সময় রাজগৃহে চন্দাভ নামে এক ব্রাহ্মণ ছিলেন। তিনি তাঁর কোনও এক পূর্বজন্মের কাশ্যপ বুদ্ধের চৈত্যে চন্দন লাগিয়েছিলেন। সেই পুণ্য ফলস্বরুপ তাঁর নাভি থেকে আলোকরশ্মির মতো আভা বিচ্ছুরিত হত। তাঁকে ব্রাহ্মণেরা নানা জায়গায় নিয়ে গিয়ে দেখাত আর ধন উপার্জন করত।

buddhism

একদিন তারা তাঁকে শ্রাবস্তীতে প্রদর্শন করানোর জন্য যখন নিয়ে যাচ্ছিল তখন রাস্তায় কিছু উপাসকও উপাসিকাকে পেল যারা মহামতি বুদ্ধের বাণী শুনতে যাচ্ছিল। ব্রাহ্মণরা তাদের থামাতে চাইল কিন্তু তারা দাঁড়াল না।এতে সেই ব্রাহ্মণেরা ভাবল যেখানে উপাসক-উপাসিকারা যাচ্ছে আমরাও কেন সেখানে যাই না। যেই তারা চন্দাভকে নিয়ে বুদ্ধের কাছে গেল, তাঁর আভা সমাপ্ত হয়ে গেল। তিনি ভাবলেন তথাগত আভা লুপ্ত করার মন্ত্র জানেন। তাই তিনি বুদ্ধকে সেই মন্ত্র তাকেও দেওয়ার জন্য বললেন। প্রব্রজিত হওয়ার পরই সে মন্ত্র দেওয়া হবে বলে বুদ্ধ তাঁকে আশ্বস্ত করলেন। এর পর তিনি প্রব্রজিত হয়ে গেলেন এবং ধ্যান-ভাবনা করে কিছু দিনের মধ্যেই অর্হত্ত্ব লাভ করলেন। ব্রাহ্মণেরা যখন তাকে নিতে এল তিনি বললেন, আমি আর এখন যাওয়ার মতো নই। তার পর তিনি আর মন্ত্রের জন্যও বুদ্ধকে বললেননি আর ব্রাহ্মণদের সঙ্গে ফিরেও যাননি। এসই সময় তথাগত বুদ্ধ এই গাথাটি শুনিয়েছিলেন।

এই চন্দাভ ব্রাহ্মণের জীবনীর উদাহরণ থেকে পরিস্কার আমরা বুঝতে পারি বৌদ্ধধর্মে অলৌকিকের কোনও গুরুত্ব নেই। বুদ্ধ কায়-বাক্য এবং চিত্তের শুদ্ধির উপর জোর দিতেন। এই কায়-বাক্য ও মনের (চিত্ত) শুদ্ধি থেকেই আধ্যাত্মিক শক্তি জন্ম নেয়। কায়-বাক্য-চিত্তের শুদ্ধি ছাড়া অলৌকিক শক্তি প্রাপ্তির জন্য কোনও রকমের সাধনার কোনও স্থান ছিল না। যদিও অলৌকিক শক্তি ব্যক্তিকে আশ্চর্য করতে পারে কিন্তু ক্লেশের নাশ করতে পারে না। যেমন আজকের বিজ্ঞান মানুষকে কি কম আশ্চর্য করতে পারে? কিন্তু বিজ্ঞান মানুষের রাগ-দ্বেষ-মোহ কমাতে পারে না।

বলা হয় যে চাঁদে মানুষের ওজন একদম কমে যায়, সে হাওয়ায় সাঁতার কাটে। কিন্তু সেখানে পৌছার পর তার রাগ-দ্বেষ-মোহকে দেখুন, কিছু কম হয় কি? কম তো নয়ই বরং দেখো আমি চাঁদে নেমেছি, এধরণের আত্মগৌরব হওয়ার কারণে অহংকার বেড়ে যায়।

অতএব মহামতি বুদ্ধ তাঁদেরকেই ব্রাহ্মণ বলেন যাঁরা তৃষ্ণাকে নাশ করে নিজের মনকে (চিত্ত)পূর্ণ চাঁদের মতো নির্মল করেছেন।

Facebook Comments

বৌদ্ধদের আরো তথ্য ও সংবাদ পেতে হলে আমাদের ফেসবুক ফ্যান পেইজে লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন।: www.facebook.com/buddhisttimes

দি বুড্ডিস্ট টাইমস.কম একটি স্বতন্ত্র ইন্টারনেট মিডিয়া। এখানে বৌদ্ধদের দৈনন্দিন জীবনের বিষয়গুলোকেই তুলে আনার চেষ্টা করা হয়। পাশাপাশি যে কেহ লিখতে পারেন দি বুড্ডিস্ট টাইমস এ। দি বুড্ডিস্ট টাইমস এর সাথে লেখ-লেখিতে যুক্ত হতে চাইলে ব্যবহার বিধি ও নীতিমালা পড়ুন অথবা নিবন্ধন করুন
এখানে।
এক্সিকিউটিভ এডিটর । দি বুড্ডিস্ট টাইমস ডটকম
http://www.thebuddhisttimes.com

দি বুড্ডিস্ট টাইমস.কম একটি স্বতন্ত্র ইন্টারনেট মিডিয়া। এখানে বৌদ্ধদের দৈনন্দিন জীবনের বিষয়গুলোকেই তুলে আনার চেষ্টা করা হয়। পাশাপাশি যে কেহ লিখতে পারেন দি বুড্ডিস্ট টাইমস এ।

Leave a Comment

error: অনুগ্রহ করে কপি/পেস্ট মনোভাব পরিহার করি নিজে লেখার যোগ্যতা অর্জন করুন।