স্ত্রীর প্রতি ভালবাসায় বুদ্ধ পূর্ণিমা দিনে মং ফো সিং মারমার অন্য রকম দৃষ্টান্ত

0 Posted by - May 18, 2017 - এক্সক্লুসিভ, সংবাদ
Smiley face

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া স্ত্রীর প্রতি ভালবাসা ও স্ত্রীর পারলৌকিক শান্তি কামনায় হাসপাতালের রোগীদের সেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বান্দরবানের রেইসা এলাকার থলিপাড়ার বাসিন্দা মং ফো সিং মারমা। সেদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত হাসপাতালের বহির্বিভাগ ও অন্তবিভাগের সব রোগীকে ওষুধ ও ফল কিনে দিয়েছেন।

এনিয়ে দৈনিক প্রথম আলো প্রকাশ করেছে একটি প্রতিবেদন।

প্রতিবেদক বুদ্ধজ্যোতি চাকমা লিখেছেন, হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে থাকা রোগীদের কাছে গিয়ে আঙুর, আপেল, মোসাম্বি ও পানীয় তুলে দিচ্ছিলেন এক ব্যক্তি। হঠাৎ এমন প্রাপ্তিতে অবাক হাসপাতালের অন্তবিভাগের রোগীরা। বহির্বিভাগের রোগীরাও বাদ যাননি ওই লোকের সেবা থেকে। রোগীরা চিকিৎসকের কক্ষ থেকে বেরিয়ে আসতেই ব্যবস্থাপত্র দেখে ওষুধও কিনে দিচ্ছিলেন তিনি। ১০ মে বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে এমন ঘটনা ঘটে। স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসার নিদর্শনস্বরূপ হাসপাতালের রোগীদের এমন সেবা দেন মং ফো সিং মারমা।

বান্দরবানের রেইসা এলাকার থলিপাড়ার বাসিন্দা মং ফো সিং মারমার ৫৪ বছর বয়সী স্ত্রী ওয়া ম্রাউ গত ১৫ মার্চ হৃদ্রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। স্ত্রীর পারলৌকিক শান্তি কামনায় এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন বলে জানান তিনি। মং ফো সিং মারমা বান্দরবানে মারমা ভাষার পণ্ডিত হিসেবে পরিচিত। তিনি মরমা ভাষার অভিধানও রচনা করেছেন।

প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘আমি আমার স্ত্রীকে খুব ভালোবাসি। তাঁর পারলৌকিক শান্তির জন্য বুদ্ধ পূর্ণিমার দিন (১০ মে) বান্দরবান সদর হাসপাতালের রোগীদের সেবা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। সেদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত হাসপাতালের বহির্বিভাগ ও অন্তবিভাগের সব রোগীকে ওষুধ ও ফল কিনে দিয়েছি।’

১০ মে ফলমূল ও পানীয় নিয়ে মং ফো সিং বান্দরবান সদর হাসপাতালে হাজির হলে চিকিৎসক, নার্স ও রোগীরা অবাক হন। পরে ফলমূল ও ওষুধ বিতরণে হাসপাতালের কর্মচারীরা তাঁকে সাহায্য করেন। এ সময় হাসপাতালের অন্তবিভাগে ১০০ ও বহির্বিভাগে প্রায় ৬০ জন রোগী ছিল।

সেদিন বাগমারা এলাকা থেকে হাসপাতালের বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিতে গিয়েছিলেন থাই মং চিং মারমা। তিনি বলেন, ‘চিকিৎসক ব্যবস্থাপত্রে বেশ কিছু ওষুধ লিখে দিয়েছিলেন। সেসব ওষুধ কিনে দেন মং ফো সিং মারমা। শুনেছি স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসার নিদর্শনস্বরূপ তিনি এই কাজ করেছেন। ভালোবাসার এমন প্রকাশ দেখে খুব ভালো লেগেছে।’

বান্দরবানের সদর ইউনিয়নের নারী সদস্য ও রেইসা এলাকার বাসিন্দা প্রু সাং থুই মারমা বলেন, মং ফো সিং যেভাবে স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করেছেন তা অনন্য। ভালোবাসার প্রকাশ এভাবেই হওয়া উচিত।

বান্দরবান সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক হ্লা হ্লা চিং বলেন, মৃত প্রিয়জনের আত্মার শান্তির জন্য অনেকেই টাকা খরচ করেন। কিন্তু মং ফো সিং মারমা যেভাবে স্ত্রীর আত্মার শান্তির জন্য হাসপাতালের রোগীদের মধ্যে খাবার ও ওষুধ বিতরণ করছেন সেটা ভালো উদাহরণ হয়ে থাকবে।

 

Facebook Comments

বৌদ্ধদের আরো তথ্য ও সংবাদ পেতে হলে আমাদের ফেসবুক ফ্যান পেইজে লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন।: www.facebook.com/buddhisttimes

দি বুড্ডিস্ট টাইমস.কম একটি স্বতন্ত্র ইন্টারনেট মিডিয়া। এখানে বৌদ্ধদের দৈনন্দিন জীবনের বিষয়গুলোকেই তুলে আনার চেষ্টা করা হয়। পাশাপাশি যে কেহ লিখতে পারেন দি বুড্ডিস্ট টাইমস এ। দি বুড্ডিস্ট টাইমস এর সাথে লেখ-লেখিতে যুক্ত হতে চাইলে ব্যবহার বিধি ও নীতিমালা পড়ুন অথবা নিবন্ধন করুন
এখানে।

No comments

Leave a reply

error: অনুগ্রহ করে কপি/পেস্ট মনোভাব পরিহার করি নিজে লেখার যোগ্যতা অর্জন করুন।